বাংলাদেশি সিনেমায় অভিনয় করে ক্ষুব্ধ কলকাতার ঋতুপর্ণা

spot_img

সম্পর্কিত আর্টিকেল

৯ টাকা দেনমোহরে বিয়ের পিঁড়িতে অভিনেত্রী চমক

শোবিজ প্রতিবেদন: মাত্র ৯ টাকা দেনমোহরে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন...

জটিল রোগে আক্রান্ত তাহসান দিলেন দুঃসংবাদ

গুরুতর জটিল রোগে আক্রান্ত দেশের জনপ্রিয় গায়ক, সুরকার, অভিনেতা...

সালমান মুক্তাদির হাসপাতালে

দেশের জনপ্রিয় ইউটিউবার ও অভিনেতা সালমান মুক্তাদির স্বাস্থ্য পরীক্ষার...

মোশাররফ করিমকে নিয়ে ‌‘আক্কেলগঞ্জ হোম সার্ভিস’

মোশাররফ করিমকে নিয়ে তৈরি হয়েছে টিভি ধারাবাহিক ‘আক্কেলগঞ্জ হোম...

বিনোদন ডেস্ক
ভারতীয় বাংলা সিনেমার দর্শকপ্রিয় অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেন কিছুদিন আগে বাংলাদেশের একটি সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। শুটিং শেষ হওয়ার পর দেড় মাস কেটে গেলেও তার পারিশ্রমিক দেননি বলে অভিযোগ করেছেন এই অভিনেত্রী। শুধু তাই নয়, পরিচালক-প্রযোজক তার সঙ্গে যোগাযোগ বন্ধ করে দিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন এই অভিনেত্রী।
এ বিষয়ে ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে ঋতুপর্ণা বলেন, ‘প্রায় তিন লাখ টাকা পাই। আমার কাছে এটা অনেক বড় অঙ্কের টাকা। অনেক দিন ধরে বসে আছি। গত দেড় মাস ধরে ক্রমাগত পরিচালককে ফোন করে যাচ্ছি, তিনি ফোন তুলছেন না, যোগাযোগ পুরোপুরি বন্ধ। আমার উদ্বেগ হচ্ছে, টাকা পাব তো! শেষমেশ বাধ্য হয়ে ফেসবুকে লিখি। আমি বৃহস্পতিবার প্রোডাকশনের লোকেদের সঙ্গে কথা বলি, খুব খারাপ ব্যবহার করা হয়। কেন আমি টাকা চাইছি, সেটাতেই আপত্তি। সেটা আমার খারাপ লাগায় ফেসবুকে লিখি। নাহলে আমি তেমন মানুষ নই যে, ফেসবুকে নিজের ব্যক্তিগত জীবন তুলে ধরব। এই অভিজ্ঞতাকে জীবনের বড় শিক্ষা বলে মনে করছেন তিনি। তার ভাষায়— ‘আসলে টাকা পাঠানো নিয়ে সমস্যা। আমি এই মুহূর্তে বুঝে উঠতে পারছি না, কী সমস্যা হচ্ছে। এর আগে শ্রীলঙ্কায় কাজ করেছি, কোনো সমস্যা হয়নি। এবারই প্রথম বাংলাদেশে কাজ করতে গিয়ে এমন ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা হলো। বুঝতে পারছি না, আমার কী করণীয়। তবে একটা শিক্ষা হয়েছে। ভবিষ্যতে ডলারে কাজ করব। টাকায় কোনো আর্থিক আদান-প্রদান না হয় সে বিষয়টি খেয়াল রাখব।’
মূলত, পারিশ্রমিক না পেয়ে প্রথম নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন ঋতুপর্ণা। যদিও তা মুছে ফেলেছেন। তবে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়ার পরই প্রযোজক টাকা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন তিনি। কিন্তু, পরিচালক-প্রযোজকের নাম প্রকাশ করেননি এই অভিনেত্রী।
এদিকে, বাংলাদেশের আতিথেয়তার প্রশংসা করে ঋতুপর্ণা বলেন, ‘ওখানকার মানুষ খুবই অতিথিপরায়ণ। খুবই ভালো অ্যাপায়ন পেয়েছি। আমার জুতা থেকে ব্যাগ বয়ে দেওয়ারও লোক ছিল। অন্যদিকে, টলিউডে জুতা তো কোন ছার, ব্যাগ বইতে বললে মুখ বাঁকা করে। দুই ইন্ডাস্ট্রিতেই ভাল-খারাপ দিক রয়েছে। সবই ঠিক ছিল। কিন্তু টাকাপয়সা নিয়ে কেন এমন হলো বুঝলাম না। তবে ওরা কথা দিয়েছে, টাকাটা যত দ্রুত সম্ভব দিয়ে দেবে। টাকাটা পাওয়া অবধি অপেক্ষা করব।’
২০০৯ সালে ‘লাভ ইন ইন্ডিয়া’ সিনেমার মাধ্যমে রুপালি জগতে পা রাখেন ঋতুপর্ণা। ‘গান্ডু’, ‘কয়েকটি মেয়ের গল্প’-এর মতো বেশ কিছু সিনেমায় অভিনয় করেন তিনি। তবে ২০১৫ সালে ‘কসমিক সেক্স’ সিনেমায় সাহসী দৃশ্যে অভিনয় করে দারুণ সমালোচিত হন তিনি। মানুষ তাকে নিয়ে সমালোচনা করলেও এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করে ভুল করেননি বলে তখন জানিয়েছিলেন। যদিও পরবর্তীতে এ অভিনেত্রী জানান, এ ধরনের চরিত্রে অভিনয় করা তার ঠিক হয়নি।

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

spot_img