বটতলার নাটক ” খনা”

spot_img

সম্পর্কিত আর্টিকেল

৯ টাকা দেনমোহরে বিয়ের পিঁড়িতে অভিনেত্রী চমক

শোবিজ প্রতিবেদন: মাত্র ৯ টাকা দেনমোহরে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন...

জটিল রোগে আক্রান্ত তাহসান দিলেন দুঃসংবাদ

গুরুতর জটিল রোগে আক্রান্ত দেশের জনপ্রিয় গায়ক, সুরকার, অভিনেতা...

সালমান মুক্তাদির হাসপাতালে

দেশের জনপ্রিয় ইউটিউবার ও অভিনেতা সালমান মুক্তাদির স্বাস্থ্য পরীক্ষার...

মোশাররফ করিমকে নিয়ে ‌‘আক্কেলগঞ্জ হোম সার্ভিস’

মোশাররফ করিমকে নিয়ে তৈরি হয়েছে টিভি ধারাবাহিক ‘আক্কেলগঞ্জ হোম...

বিনোদন প্রতিবেদক
নাটকের দল বটতলার প্রযোজনায় বেইলি রোডের মহিলা সমিতি মিলনায়তনে শুরু হলো “খনা” নাটকের দুইদিনের মঞ্চায়ন।

সোমবার সন্ধ্যায় শুরু হয় দুইদিনের এই প্রদর্শনী।সামিনা লুৎফা নিত্রার রচনায় নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন মোহাম্মদ আলী হায়দার।

এক বিদুষী খনা যার অন্য নাম লীলাবতী। তার গল্পটা অনেক পুরনো, কিংবদন্তীর ঘেরাটোপে বন্দী। তবু যেটুকুর তল খুঁজে পাওয়া যায় তাতে বোধ হয় যে তিনি এক বিদুষী জ্যোতিষী, স্বামী মিহিরও একই বৃত্তিধারী। শ্বশুর যশস্বী জ্যোতিষী বরাহ মিহির। পুত্রজায়ার যশ, খ্যাতি ও বিদ্যার প্রভাব সন্দর্শনে বরাহের হীনমন্যতা ও ঈর্ষা। পুরুষের এই ঈর্ষাটুকু বোঝা ততটা কঠিন নয়। কঠিন থাকেওনি। শ্বশুরের নির্দেশে লীলাবতীর জিহবা কর্তন ও তার খনা হয়ে ওঠার গল্প পেরিয়েছে প্রজন্মের সীমানা। তাই একবিংশ শতকেও হাতরে বেড়ানো খনার বচন। এ নাটকের কাহিনী এগিয়েছে চন্দ্রকেতু গড়কে কেন্দ্র করে,-যেখানে আজো আছে খনা-মিহিরের ঢিবি। লঙ্কাদ্বীপ থেকে খনা মিহিরকে সঙ্গে করে পৌঁছে দেন তার পিতা বরাহ মিহিরের কাছে। বরাহ মিহির বালহণ্ডার দেউলানগর বা দেউলনগরের রাজা ধর্মকেতুর রাজজ্যোতিষী। পুত্র মিহিরের জন্মকোষ্ঠী ভুল গণনা করে তাকে ভাসিয়েছিলেন বিদ্যাধরীর জলে। সেই মিহিরকে নিয়ে খনা হাজির হন বরাহের সামনে, ভুল প্রমান করেন বরাহের গণনা। ধর্মকেতুর রাজসভায় পরিচিত হন মিহির ও লীলাবতী। রাজসভাসদ পদও লাভ করেন। বরাহ মেনে নিতে পারেন না পুত্রবধুর এই উত্থান। অন্যদিকে খনা নতুন দেশের নতুন মানুষদের সাথে মেশেন বাধনহারা। প্রশ্ন হয়ে দাঁড়ান শাসককুলের সামনে। লেখ্য ভাষাহীন প্রাকৃত বর্বরদের কৃষি সংক্রান্ত জ্ঞানকাণ্ডের বিকাশে গেঁথে চলেন বচনের পর বচন, যা বেঁচে আছে আজো কৃষকের মুখে। লীলার অবাধ্যতায় ক্রুদ্ধ বরাহ পুত্রকে আদেশ করেন খনার জিহ্বা কর্তন করে তাঁকে উৎসর্গ করতে। খনার বচনের মাঝে টিকে থাকা শত বছরের আগের জল, মাটি, ফসল আর মানুষের গন্ধ মাখা জ্ঞান আর সত্যটুকু কি সত্যি লীলাবতীর? নাকি এ সত্য-তথ্য সবই এ ভূখণ্ডের বৃষ্টি জল হাওয়ার সাথে মিশে থাকা যুগান্তরের সামষ্টিক জ্ঞানের সংকলন? লীলাবতী শুধুই কি একজন নারী বলে তার পরিনয় নির্মম, নাকি তিনি নারী হয়ে মিশেছিলেন চাষাভুষোর সনে, সেই তার কাল। । পুরুষতন্ত্র না শ্রেণী কাঠামো, নাকি উভয় দাঁড়ায় লীলাবতীর বিপ্রতীপে? মিহির বা প্রাকৃত লোকালয় কারোর পরোয়া না করা জীবন ত্যাগী নেশার ঘোর তাকে নিয়ে যায় দিগন্তের ওপার।খনার সত্য শুধু থেকে যায় কৃষকের মুখে। তবু প্রশ্ন থাকে, খনার সত্যই কি একক সত্য? নাকি আজকে নির্ভুল যা কাল তা হতে পারে অসত্য? শুধু সত্য এর পক্ষে দাঁড়ানোর যে মৃত্যুনেশা তাঁর, সে নেশা কি এক রোখা জেদ? খনা নিজেই নিজেকে করেন সম্মুখীন প্রশ্নের। এভাবেই এগিয়ে যায় নাটকটির কাহিনি।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন-সামিনা লুৎফা নিত্রা, কাজী রোকসানা রুমা, ইমরান খান মুন্না, ইভান রিয়াজ, তৌফিক হাসান, শেউতি শাহগুফতা, পঙ্কজ মজুমদার, কামারুজ্জামান সাঈদ, হুমায়ূন আজম রেওয়াজ, রানা তিওয়ারি, হাফিজা আক্তার ঝুমা, আবদুল কাদের, মিজানুর রহমান, শাহনেওয়াজ ইফতি, রিশাদুর রহমান রিশাদ, লায়েকা বশীর, পলাশ নাথ, সানজিদা ইয়াসমীন, আশরাফুল অশ্রু, ও সানজানা ফারাহ। অন্যদিকে, একই সময় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মঞ্চায়ন হয় প্রাচ্যনাট স্কুল অব অ্যাক্টিংয়ের নাটক ” রক্তকরবী” ও স্টুডিও থিয়েটার হলে মঞ্চায়ন হয় আরশিনগর প্রযোজিত নাটক ” সিদ্ধার্থ”।

এখানে বিজ্ঞাপন দিন

spot_img